1. Sohelhota@gmail.com : জি এম ফয়সাল : জি এম ফয়সাল
  2. helalnc22@gmail.com : Helal Uddin : Helal Uddin
  3. daynikbanglarkota@gmail.com : M.O. Telecom : M.O. Telecom
  4. rana016482@gmail.com : মোঃ মাসুদ রানা : মোঃ মাসুদ রানা
  5. miraz55577@gmail.com : মোঃ মিরাজ হোসেন : মোঃ মিরাজ হোসেন
  6. nabsar775@gmail.com : Nurul Absar : Nurul Absar
  7. mdosmank143@yahoo.com : Mohammad Osman : Mohammad Osman
  8. mdosmank143@gmail.com : মোহাম্মদ ওসমান : মোহাম্মদ ওসমান
রবিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৬:০২ পূর্বাহ্ন
বিজ্ঞপ্তিঃ
অচেনা পথিক কলমে : কাজী সেলিনা মমতাজ শেলী।দৈনিক বাংলার কথা অনলাইন। অসীম জগতে স্নেহ কলমে : কাজী সেলিনা মমতাজ শেলী।দৈনিক বাংলার কথা অনলাইন। স্মৃতির পাতায় তুমি-বিভা গুপ্তা -দৈনিক বাংলার কথা অনলাইন। আজ আমি বলতে এসেছি– রিপন তালুকদার।দৈনিক বাংলার কথা অনলাইন। সন্দেহ না ভালোবাসো কলমে – মানস দেব।দৈনিক বাংলার কথা অনলাইন। শেওলার মতো জীবন” 🔘 কলমেঃ- ডাঃ গোলাম রহমান ব্রাইট।দৈনিক বাংলার কথা অনলাইন। অগ্নিশিখা -এস আকরাম হোসেন।দৈনিক বাংলার কথা অনলাইন। কবিতাঃনন্দিতা চাকমা -কবিঃশওকত কামাল (বাবুল)।দৈনিক বাংলার কথা অনলাইন। কবিতাঃআমি দেখেছি -কবিঃআলকামাহ শাকিলুর রশিদ।বাংলার কথা অনলাইন। কবিতাঃলাশ হবে ডাকে নাম কবিঃআবু তাহের মাসুম।বাংলার কথা অনলাইন।

বাংলা জননীর বারো মাস – আলী হোসেন।দৈনিক বাংলার কথা অনলাইন।

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেটের সময়ঃ বুধবার, ৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ১৪২ বার পড়া হয়েছে
  • বাংলা জননীর বারো মাস
    – আলী হোসেন

আমের মুকুল ও কাঁঠালের উঁকিঝুকি
গাছে গাছে নিয়ে
যে অতিথি আসে, সে বৈশাখ
বাংলার প্রথম মাস-

অতঃপর একদিন, আম-কাঁঠালেরা যৌবন পায়
হরেক রকম সাজে সেজে উঠে ফলগুলো
ফলের যৌবন মানুষের উদরপুঁতি হয় জৈষ্ঠ্যে

কদম ফুলের গাছ, যেদিন মায়াবী ইশারায় ডাকে
তার কাছে যাই, সে দেখায় বৃষ্টিভেজা আকাশ
কদমের ডালে বৃষ্টি নিয়ে
বাংলায় জন্ম নেয় আষাঢ়।

কদম ফুলেরা হাসে, মরা নদী যৌবন পায় শ্রাবনে
নির্ঝরিনী সে যৌবন ঢেকে রাখেনা ওড়নার নিচে
চারদিকের মাঠ প্রান্তরে সে ছড়িয়ে দেয় তা।

বিলের পানিতে শাপলা-শালুক মেতে উঠে
সঙ্গীত চর্চায় ;
নদীতীর ছেঁয়ে যায় শুভ্র কাশফুলের মায়ায়
আকাশ তার শ্রাবনভেজা গা মুছে তৈরী হয়
অনেকদিন একটানা কান্নার জন্য
ঘন বর্ষনের ভাদ্র মাসে।
আকাশের চোখের জল মুছে দিতে
আশ্বিন আসে।

ফসল ভরা মাঠে ব্যস্ত হয়ে উঠেন
সবার প্রাণ, অবহেলিত কৃষক-
ফসল কাটার আনন্দে মাতোয়ারা তিনি
একদিন শেষ হয় সমস্ত কাজ
শুন্য মাঠ পড়ে থাকে, একাকীত্বের বেদনায়
এই শুন্যতা দিয়ে
বিদেয় হয় কার্তিক-অগ্রহায়ন।

কূয়াশার চাদর নিয়ে আবির্ভাব ঘটে পৌষের
গেরস্থ বাড়ি মেতে উঠে
নানারকম শাক্ সবজিতে,
আর খেঁজুর গাছগুলো কেঁদে উঠে
গাছির ধারালো দা এর নিষ্ঠুর আদরে
খেঁজুর গাছের চোখের জল
কলসী ভরে এনে, মা- মামী তৈরী করেন
হরেক স্বাদের পিঠা।
পিঠার স্বাদ দিয়ে চলে যায় মাঘ।

কাননে কুসুম কলি আর নব কিশলয় নিয়ে
আসে ফাল্গুন, কোকিল গায় সুমিষ্ট কন্ঠে
বাংলা রুক্ষ শ্রী বদলে হয় অপরুপ
এসময় বাংলা মা আমার ধারন করে
একই অঙ্গে বহুরুপ।

ফাল্গুনের সাজানো অঙ্গে ধুলো ছিটিয়ে
আসে চৈত্র-
যেন দুষ্ট নগ্ন শিশুর ধূলো বালি খেলা
এ খেলায় নষ্ট হয় বাংলার ফাগুনের শাড়ি।

তবু কষ্ট হয় না বাংলা মায়ের
সাজ নষ্টে কাঁদেনা করুন সুরে
এ কথা কে না জানে, আবার রঙ্গিন দিন আসবে
ক্রমাগতঃ বছর ঘুরে…

রচনাকালঃ ১৯ এপ্রিল ১৯৯৪

লেখাটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো লেখা
© ২০২১ বাংলার কথা । এম.ও. টেলিকম কর্তৃক সর্বস্বত্ত্ব স্বত্ত্বাধিকার সংরক্ষিত
Theme Customized BY LatestNews